তৈল অভিজ্ঞতা

কৈশোরে পড়ে হেসে ছিলাম
“এক তৈলে চাকাও ঘোরে আর তৈলে মনও ফেরে।” -হরপ্রসাদ শাস্ত্রী

কিশোর বয়সেই তৈলের বহুবিদ ব‍্যবহার জেনে আমার সচেতনতা অতিরিক্ত বেড়ে গিয়েছিল। যা গল্প-লেখায়, চরিত্র অঙ্কনে আমি চৌকসতা পেয়েছিলাম। কিন্তু সব বুঝে ফেলা, অন‍্যকে ভালোবাসতে না পারার যে কত কষ্টকর -তা পেতাম পদে পদে! পূর্বের মত বোকা হতে চাইতাম, কিন্তু পারতাম না! শান্তির জন‍্য, ভালোবাসা উপভোগের জন‍্য- গত ১৫+ বছর নীরবতা মেডিটেশন ( বোবা-কালা হয়ে থেকো) করে নিজেকে ঠিক করার চেষ্টা করছি। একটু ফল পেয়েছি।

তৈলের জোরে অযোগ‍্য কাউকে যোগ‍্য আসনে দেখে কষ্ট পাবেন না । এটা শুধু বাংলাদেশে না, সারা দুনিয়াতে কম-বেশী ঘটে।

যদি অন‍্যের সফলতায় ঈর্ষা হয়, তবে আপনিও শুরু করে দিতে পারেন।
তোষামোদি অপবাদ না পেয়ে – সফলতা পেলে মন্দ কি?

তবে এটা সত‍্য তৈলের সফলতা যতদিন তৈল থাকে ততদিন থাকে, আর যোগ‍্যতারটা শাশ্বত, ঠিকে থাকে সারাজীবন।

( The power of oil. Oiling that is palpitations may make a temporary good result but not always as an eternal.)

জুলাই ২০th, ২০১৭|